» ডিসি ও বিভাগীয় কমিশনারকে হুঁশিয়ারি

Published: ০৭. ডিসে. ২০১৭ | বৃহস্পতিবার

চট্টগ্রামের সংস্কৃতি চর্চার প্রাণকেন্দ্র ডিসি হিলে অনুষ্ঠান আয়োজনের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না করলে কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার হুমকি দিয়েছে চট্টগ্রামের সংস্কৃতি পর্ষদের নেতারা। ডিসি হিলে বঙ্গবন্ধু বইমেলা ও মুক্তিযুদ্ধের বিজয় উৎসব পালনের অনুমতি দেওয়া না হলে প্রয়োজনে জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনারকে তাদের বাসভবনে যেতে দেওয়া হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছে তারা।   আজ রাতে চট্টগ্রামের সর্বস্তরের সংস্কৃতিসেবীদের সংগঠন ‘সংস্কৃতিপর্ষদ চট্টগ্রাম’ সংগঠনের পক্ষে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এমন হুঁশিয়ারি জানানো হয়।   এদিকে, নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবিতে শুক্রবার ডিসি হিল চত্ত্বরে প্রতিবাদ সভা পালনের ডাক দিয়েছে তারা। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপও কামনা করেছে চট্টগ্রামের সংস্কৃতিকর্মীরা।

বিবৃত্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, সংস্কৃতিবান্ধব সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করতেই জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনার ষড়যন্ত্র করছেন। ডিসি হিলে ‘বঙ্গবন্ধু বইমেলা ও মুক্তিযুদ্ধের বিজয় উৎসব’ পালনের অনুমতি না দেওয়া চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রের অংশ। যে কোনো মূল্যে আমরা ডিসি হিলের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার চায়। আমরা চাই না কোন অনাকাক্ষিত পরিস্থিতির সৃষ্টি হোক। এ ধরণের পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনারকে দায়ী থাকতে হবে। ’

বিবৃতিদাতারা হলেন, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সমাজবিজ্ঞানী ও একুশে পদকপ্রাপ্ত প্রফেসর ড. অনুপম সেন, বরেণ্য কবি ও সাংবাদিক অরুণ দাশগুপ্ত, মুক্তিযোদ্ধা ও সাহিত্যিক বেগম মুশতারী শফী, মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা নঈম উদ্দিন চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিক নাসিরুদ্দিন চৌধুরী, পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ চট্টগ্রামের সভাপতি ডা. একিউএম সিরাজুল ইসলাম, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রামের সদস্য সচিব আহমেদ ইকবাল হায়দার, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শুকলাল দাশ প্রমুখ।

Share Button

খোঁজাখুঁজি

ডিসেম্বর ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« নভেম্বর    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১