» ভোলায় নতুন গ্যাসক্ষেত্র

Published: ১৫. জানু. ২০১৮ | সোমবার

ভোলার ভেদুরিয়ায় দেশের ২৭তম গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কৃত হয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেছেন, ভোলার ভেদুরিয়ায় আবিষ্কৃত গ্যাসক্ষেত্রে ১ দশমিক ৫ ট্রিলিয়ন কিউবিক ফুট (টিসিএফ) গ্যাস মজুত আছে। সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকে নতুন গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কারের বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে। পরে সচিবালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব। তিনি বলেন, এটি দেশের ২৭তম গ্যাসক্ষেত্র।
এদিকে ভোলা সংবাদদাতা জানান, সদর উপজেলার ভেদুরিয়া ইউনিয়নের মাঝিরহাটে নতুন একটি গ্যাসক্ষেত্রের সন্ধান পেয়েছে
রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানি বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রডাকশন কোম্পানি লিমিটেড (বাপেক্স)। নতুন এ গ্যাসক্ষেত্রে ১ দশমিক ৫ ট্রিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস রয়েছে বলে আশা করা হচ্ছে।
জানা গেছে, কয়েক দিন ধরেই ভেদুরিয়ায় গ্যাসের অস্তিত্ব পাওয়া যাচ্ছিল। তবে যাচাই-বাছাই করে বিষয়টি সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায় বলে বাপেক্স সূত্র জানিয়েছে। ভোলা নর্থ-১ নামে গ্যাস অনুসন্ধান কূপের খননকাজে সহযোগিতা করছে রাশিয়ার গ্যাজপ্রম ইন্টারন্যাশনাল ও মার্কিন কোম্পানি হ্যালিবারটন। এর আগে ভোলার শাহবাজপুরে একটি গ্যাসক্ষেত্রের সন্ধান পাওয়া যায়। এতে ৭০০ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস রয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে বাপেক্স।
এদিকে নতুন গ্যাসক্ষেত্র ভেদুরিয়া গ্যাস মজুদের বিষয় নিশ্চিত হওয়ায় আনন্দের জোয়ারে ভাসছেন ওই এলাকার মানুষ। এ বিষয়ে ভেদুরিয়া এলাকার চেয়ারম্যান মোঃ তাজুল ইসলাম মাস্টার জানান, নতুন গ্যাস পাওয়ায় আমরা ভেদুরিয়াবাসী গর্বিত। এতে এলাকার শিল্পায়ন হবে এবং বেকারত্ব দূর হবে।
উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ৯ ডিসেম্বর জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সচিব নাজিম উদ্দিন চৌধুরী ভোলা নর্থ-১ গ্যাস অনুসন্ধান ?কূপ খনন উদ্বোধন করেন। ওই সময় তিনি জানান, বাপেক্স চলতি অর্থবছরে আরও চারটি গ্যাস অনুসন্ধান কূপ খনন করবে। এরই মধ্যে ৯টি কূপ খনন কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এর আগে শাহবাজপুর ইস্ট গ্যাস কূপ খনন করা হয়েছে, সেখানে বিপুল পরিমাণ গ্যাস পাওয়া গেছে

Share Button