» নগরীর চৌমাথা এলাকার ফয়সাল ওরফে কদমের খুটির জোর কোথায়?

Published: ০৫. এপ্রি. ২০১৮ | বৃহস্পতিবার

থানা পুলিশের তালিকাভুক্ত ছিচকে সন্ত্রাসী ,চৌমাথা থেকে করিমকুটির এলাকার চিহ্নিত ছিনতাইকারী ফেরদৌস ওরফে কদমের অত্যাচারে অতিষ্ঠ ঐ এলাকার সাধারন মানুষ।চৌমাথা,করিমকুটির হাতেম আলী কলেজ এলাকার একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে ফেরদৌস ওরফে কদম এখন থানা পুলিশী ঝামেলা এড়াতে ভোল পাল্টে দাড়ি টুপি পড়ে ভদ্রলোক সাজার চেষ্ঠা করছেন। জানা গেছে,ফেরদৌস এলাকায় ছিনটাই,মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রনকারি।বিভিন্ন সময় পুলিশের হাতে আটক হয়েছে।কদমের বড় ভাই ফরেষ্টার বাড়ি এলাকার বাকেরগঞ্জ কলেজের সাবক প্রিন্সিপালের বাড়িতে ডাকাতি মামলার আসামী।এলাকায় কথিত রয়েছে দু পুত্রর জন্য বিভিন্ন সময় নাজেহাল হতে হয়েছে তাদের পিতাকে।এ মনোকষ্ট নিয়েই তিনি মারা গেছেন।ফেরদৌসের অপকর্মের কেউ প্রতিবাদ করলেই তাকে নানাভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য উঠে পড়ে লাগে কদম ও তার বাহিনী।ফেরদৌসের মাদকের বিষে ধংস্ব হচ্ছে এলাকার যুব সমাজ।স্থানীয় ব্যক্তিরা জানায় ফেরদৌস হাতেম আলী কলেজ চলাকালীন সময়ে কলেজের ছাত্রীদের কাছে চাদা দাবি করে তা  না দিলেই ঐ সকল মেয়েদের ইভটিজিং করে।এ ছাড়াও রাতের আধারে এলাকায় যে সমস্ত ছিনতাই হয়ে থাকে তার সংঘবদ্ধ চক্রের নতা এই ফেরদস।এলাকাবাসী তার হাত থেকে পরিত্রানর জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।এ প্রসঙ্গে কোতয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত বলেন,এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ দেয়নি অভিযোগ পেলে ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

Share Button

খোঁজাখুঁজি

জুন ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« এপ্রিল    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০